বৃহস্পতিবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৯



‘কলঙ্কিত পুরুষের জীবনসঙ্গী প্রিয়াঙ্কা’


আলোকিত সময় :
25.01.2019

রাজনীতিতে আনুষ্ঠানিকভাবে অভিষেকের একদিন পরই তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছেন ভারতের বিরোধী দল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক ও রাহুল গান্ধীর বোন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। বিহারের উপমুখ্যমন্ত্রী সুশীল মোদি বৃহস্পতিবার প্রিয়াঙ্কার সমালোচনা করে বলেছেন, কলঙ্কিত পুরুষের জীবনসঙ্গী নারীর রাজনীতিতে প্রবেশ নিয়ে উল্লাস করছে কংগ্রেস।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে তার দাদি ও ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর মিল থাকা নিয়েও কটাক্ষ করেছেন বিজেপির এই নেতা। সুশীল মোদি বলেছেন, শুধুমাত্র একজনের সঙ্গে সাদৃশ্য থাকাই যদি যোগ্যতা হিসেবে ধরা হয়, তাহলে আমাদের আরো অনেক অমিতাভ বচ্চন, বিরাট কোহলি রয়েছেন। রাজনীতিতে বিকল্প কাজ করে না, প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে ইন্দিরা গান্ধীর মিল থাকতে পারে; কিন্তু দু’জনের পার্থক্য অনেক।প্রিয়াঙ্কার স্বামী রবার্ট ভদ্রকে নিয়ে বলতে গিয়ে ইন্দিরা গান্ধীর স্বামী ফিরোজ গান্ধীর প্রসঙ্গও তুলে ধরেন সুশীল মোদি। ফিরোজ গান্ধী প্রসঙ্গে সুশীল বলেন, তিনি ছিলেন একজন সুবক্তা এবং দৃঢ়চেতা সাংসদ, যিনি প্রভাবশালী শ্বশুর জওহরলাল নেহেরুর বিরুদ্ধে কথা বলার ক্ষমতা রাখতেন।বিহারের এই মুখ্যমন্ত্রী বলেন, প্রিয়াঙ্কার ব্যবসায়ী জীবনসঙ্গীর অবৈধ জমি কারবার দুই রাজ্যে ছড়িয়ে রয়েছে। তা নিয়ে তিনি সমস্যাতেও ভুগছেন, একজন কলঙ্কিত পুরুষের জীবনসঙ্গী নারীকে নিয়ে কংগ্রেস যদি উল্লাস করে, তাহলে করুক।

এর আগে পাটনায় এক অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে প্রিয়াঙ্কার রাজনীতিতে আসা নিয়ে সুশীল বলেন, সমাজবাদী পার্টি (সপা) ও বহুজন সমাজ পার্টিকে (বসপা) বিপদে ফেলতেই কংগ্রেসে নাম লেখালেন প্রিয়াঙ্কা।কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর হাত ধরে বুধবার রাজনীতির ময়দানে আবির্ভাব হয় প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর। তাকে উত্তরপ্রদেশের পূর্বাংশের সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে। সুশীল মোদি বলেন, প্রিয়াঙ্কার রাজনীতিতে নামা তার স্বামী রবার্ট ভদ্রের বিরুদ্ধে জমি কেলেঙ্কারির অভিযোগ কেন্দ্রবিন্দুতে চলে আসতে পারে, যার ফলে লাভবান হবে এনডিএ।

তিনি বলেন, বিজেপি আদৌ শঙ্কিত নয়। হবে কেন, যখন তার আবির্ভাবই হয়েছে আমাদের সাহায্য করতে। সপা-বসপা জোটকে বিপদে ফেলা এবং তাদের ভোট ভাগ করার দৃষ্টিভঙ্গি থেকে প্রিয়াঙ্কাকে নামিয়েছে কংগ্রেস। মায়াবতী এবং অখিলেশ যাদবকে তাদের কৌশল নিয়ে পুনর্বিবেচনা করার জন্য এটি একটি সাহসী পদক্ষেপ।
সূত্র : এনডিটিভি।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি