বৃহস্পতিবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৯



আগামী ১৫, ১৬ ও ১৭ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ইজতেমা


আলোকিত সময় :
24.01.2019

নিউজ ডেস্ক: এবারের বিশ্ব ইজতেমার তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে। মুসল্লিম উম্মাহর দ্বিতীয় বৃহৎ এ ধর্মীয় আসরটি আগামী ১৫, ১৬ ও ১৭ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে। তাবলিগের দুই পক্ষের বিবাদ নিরসন হওয়ায় এ তারিখ ঘোষণা করা হয়।

বৃহস্পতিবার (২৪ জানুয়ারি) বিকালে বিশ্ব ইজতেমার এ তারিখ ঘোষণা করা হয়।

এর আগে গতকাল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল জানিয়েছেন, টঙ্গীতে বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে তাবলিগ জামাতের দুই পক্ষের সমঝোতা হয়েছে। ফেব্রুয়ারি মাসের যে কোনো সময় ইজতেমা অনুষ্ঠিত হবে।

বৈঠকে দুই পক্ষে নেতৃত্ব দেন ওয়াসিকুল ইসলাম ও মাওলানা জোবায়ের। মাওলানা সাদ আহমাদ কান্ধলভী ও মাওলানা জোবায়ের আহমেদের পক্ষের তাবলিগ জামাত নেতাদের উভয় পক্ষেই ১৬ থেকে ১৭ জন করে সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

অন্যদিকে, উপস্থিত ছিলেন সরকারের পক্ষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ছাড়াও ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আব্দুল্লাহ, স্বরাষ্ট্র সচিব ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ, ধর্ম সচিব মো. আনিছুর রহমান, র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের প্রধান বেনজির আহমেদ, আইজিপি ড. জাবেদ পাটোয়ারী।

প্রায় আড়াই ঘণ্টা বৈঠক করার পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ফেব্রুয়ারি যে কোনো সময় দুই পক্ষ একসঙ্গে বিশ্ব ইজতেমা করতে সম্মত হয়েছে। ইজতেমার তারিখ ঠিক করার জন্য মাওলানা জুবায়ের আহমেদ ও মাওলানা ওয়াসেকুল ইসলাম ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে আগামীকাল বৈঠকে বসবেন।এর আগে গত সোমবার ইজতেমার আয়োজন নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সঙ্গে বৈঠকে হয়। কিন্তু ওই বৈঠকে সাদপন্থী অনুসারীরা অংশ নিলেও সাদ বিরোধী অংশের মুরব্বিরা যোগ দেননি।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের বিশ্ব ইজতেমার পর তাবলিগ জামাতের দুপক্ষ আলাদাভাবে বিশ্ব ইজতেমার তারিখ ঘোষণা করে। এর পর নিজামুদ্দীন মার্কাজপন্থী মাওলানা সাদের অনুসারীরা ১১, ১২ ও ১৩ জানুয়ারি বিশ্ব ইজতেমার তারিখ নির্ধারণ করেন। এর বিরোধিতা করে ১৮, ১৯ ও ২০ জানুয়ারি ইজতেমার তারিখ নির্ধারণ করে হেফাজতপন্থী মাওলানা জুবায়ের অনুসারীরা। উভয় পক্ষের মধ্যে বিরুদের জেরে গত ১ ডিসেম্বর টঙ্গী ইজতেমা ময়দানে এ নিয়ে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষও হয়। সংঘর্ষে দুজন নিহত ও শতাধিক আহত হন।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি