বুধবার ১৪ নভেম্বর ২০১৮



কোটি টাকার স্বর্ণসহ শাহজালালে আটক ৩


আলোকিত সময় :
04.11.2018

নিজস্ব প্রতিবেদক :      শাহজালাল বিমানবন্দরে ২ কেজি ৪৬ গ্রাম স্বর্ণ সহ ৩ জনকে আটক করেছে শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগ।
আটককৃতরা হলো আফরাতুল আজিম, মোহাম্মদ রিয়াজুল হক ও জাফর উল্লাহ।

সূত্র জানায়, ‘ শনিবার বিকেলে এমিরেটস এয়ারলাইন্সের ইকে ৫৮৬ ফ্লাইটে দুবাই থেকে আসা ২ যাত্রীর রেক্টামের ভিতর লুকানো ১৫টি স্বর্ণবার ও ২০২ গ্রাম স্বর্ণালঙ্কার এবং অপর যাত্রীর কাছ থেকে ১০৪ গ্রাম স্বর্ণালঙ্কার উদ্ধার করা হয়।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের মহাপরিচালক (ডিজি) ড. শহীদুল ইসলাম জানান,, গোপন সংবাদের মাধ্যমে শুল্ক গোয়েন্দা দল জানতে পারে ইকে ৫৮৬ ফ্লাইটযোগে স্বর্ণ চোরাচালান হবে। ওই তথ্যের ভিত্তিতে তারা এয়ারপোর্টের বিভিন্ন স্থানে অবস্থান নেয়।’

তিনি বলেন,,’ ৩ জন যাত্রী গ্রিন চ্যানেল অতিক্রম করার পর শুল্ক গোয়েন্দা দল তাদেরকে আটক করে। আটকের পর সুনিশ্চিত তথ্য থাকার পরও জিজ্ঞাসাবাদে তারা স্বর্ণ বহনের বিষয়টি অস্বীকার করেন।
তিনি বলেন, এ সময় যাত্রীদের শারীরিক লক্ষণাদিতে স্বর্ণ বহনের বিষয়টি স্পষ্ট হয়। জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে আফরাতুল আজিম এবং মোহাম্মদ রিয়াজুল হক তাদের রেক্টামে স্বর্ণ বহনের বিষয়টি স্বীকার করেন।

তিনি জানান, এরপর বিশেষ কায়দায় তাদেরকে ব্যায়াম করিয়ে, রুটি, কলা, জুস ও পানি খাইয়ে শুল্ক গোয়ন্দা দল যাত্রীদ্বয়ের রেক্টাম থেকে ১৫ পিস স্বর্ণেরবার বের করায়। এছাড়া তাদের কাছ থেকে ২০২ গ্রাম স্বর্ণালঙ্কার উদ্ধার করা হয়।

ড. শহীদুল ইসলাম বলেন, জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে অপর যাত্রী জাফর উল্লাহ পালানোর চেষ্টা করেন। এরপর তার দেহ তল্লাশি করে ঘোষণা বহির্ভূত ১০৪ গ্রাম স্বর্ণালঙ্কার উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার হওয়া স্বর্ণের মূল্য প্রায় এক কোটি ৮ লাখ টাকা।

তিনি বলেন, তিন যাত্রীর মালামাল, ট্রলি ইত্যাদি পর্যালোচনায় মনে হয়ছে তারা একই উদ্দেশে স্বর্ণ বহন করছিলেন এবং শুল্ক ফাঁকি দিয়ে অবৈধ চোরাচালান ছিল তাদের মূল উদ্দেশ্য।

উদ্ধারকৃত স্বর্ণ ঢাকা কাস্টমস হাউসের গুদামে জমা দেয়া হয়েছে। এছাড়া আটক তিন ব্যক্তিকে বিমানবন্দর থানায় সোপর্দ পূর্বক নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানান শুল্ক গোয়েন্দার এই কমর্কতা।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি