মঙ্গলবার ১৬ অক্টোবর ২০১৮
  • প্রচ্ছদ » জাতীয় » দুর্নীতিমুক্ত সৎ প্রার্থীকে নির্বাচিত করুন: রাষ্ট্রপতি



দুর্নীতিমুক্ত সৎ প্রার্থীকে নির্বাচিত করুন: রাষ্ট্রপতি


আলোকিত সময় :
24.09.2018

বক্তব্য দিচ্ছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ -বাসস

অনলাইন ডেস্ক: আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দুর্নীতিমুক্ত ও সৎ জনবান্ধব প্রার্থীকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করার আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। তিনি বলেন, যারা চাকরির নামে ঘুষ নেয়, প্রতারণা করে, তাদের আপনারা ভোট দেবেন না। ভালো মানুষকে ভোট দেবেন। জনগণের প্রতিনিধি না হয়ে সংসদ সদস্য যদি মাস্টার বনে যান, তাহলে তাদেরও প্রত্যাখ্যান করুন।

সোমবার কিশোরগঞ্জের অষ্টগ্রাম সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের খেলার মাঠে এক গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

যোগ্য নেতা নির্বাচনের ওপর গুরুত্ব আরোপ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, জনগণ জানে রাজনীতিতে কারা সৎ, দক্ষ ও যোগ্য। আপনাদের ভোটে বারবার এমপি নির্বাচিত হয়েছি। ফলে কোনো কোকিল নেতাকে আপনারা প্রশ্রয় দেবেন না।

রাজনৈতিক নেতাদের উদ্দেশে রাষ্ট্রপতি বলেন, নিজেদের মধ্যে বিরোধ না করে দেশের কল্যাণে এগিয়ে আসুন সবাই। নিম্ন আয় থেকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছি। তবে আমরা এখনও অনেক পিছিয়ে রয়েছি। সবাই মিলে দেশকে এগিয়ে নিতে হবে।

আবদুল হামিদ বলেন, তার সভায় নির্বাচনী বক্তব্য দেওয়া যাবে না। তিনি সবার রাষ্ট্রপতি। জনগণকেই তাদের সিদ্ধান্ত নিতে হবে। তিনি কোনো নির্বাচনী মিটিং করেন না এবং বক্তৃতাও দেন না। সত্যিকারের উন্নয়নের কথা চিন্তা করে সৎ ও চরিত্রবান ব্যক্তিকে নির্বাচনে জয়ী করতে আহ্বান জানান তিনি।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের একপর্যায়ে আবেগ-আপ্লুত হয়ে রাষ্ট্রপতি বলেন, হাওরের স্মৃতিময় অতীত তাকে তাড়া করে ফেরে। ইচ্ছা করলেই নিজ এলাকা হাওরে আসতে পারেন না। তবে তার মনটা পড়ে থাকে হাওরের মানুষের কাছে।

এলাকার উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে আবদুল হামিদ বলেন, অষ্টগ্রাম থেকে বাজিতপুর পর্যন্ত রাস্তা হচ্ছে। আমার স্বপ্ন ছিল বঙ্গভবন থেকে গাড়িবহর নিয়ে অষ্টগ্রামে আসব। কিন্তু সবুরের খালের জন্য আসতে পারি না। একদিন সব হবে। বাঙ্গালপাড়া থেকে নোয়াগাঁও পর্যন্ত রাস্তা হবে। এরই মধ্যে বিলমাকশায় ব্রিজের টেন্ডার হয়ে গেছে। ‘অলওয়েদার রোড’-এর কাজ সম্পন্ন হলে ইটনা, মিঠামইন ও অষ্টগ্রাম থেকে যে কোনো জায়গায় যাওয়া যাবে। আমি স্বপ্ন দেখি, হাওরের প্রতিটি উপজেলার সঙ্গে জেলা শহরের যোগাযোগ ফ্লাইওভারের মাধ্যমে স্থাপিত হবে। এ ধরনের পরিকল্পনা রয়েছে।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ভাষণ দেওয়ার আগে অষ্টগ্রাম, ইটনা ও মিঠামইন উপজেলার সংযোগ সড়ক ও অষ্টগ্রাম-ঢাকা সড়কের কাজের অগ্রগতিসহ সাতটি প্রকল্পের ফলক উন্মোচন করেন রাষ্ট্রপতি। উপজেলা পরিষদের সম্প্রসারিত চারতলা নতুন ভবনের উদ্বোধন করবেন তিনি। এ ছাড়া অষ্টগ্রাম-লাখাই সড়ক, অষ্টগ্রাম-মিঠামইন সড়ক, কাস্তুলবাজার-নিকলী সড়ক, অষ্টগ্রাম-আদমপুর সড়ক ও সাভিয়া নগর-হুমায়ুনপুর সড়কের ফলক উন্মোচন করেন তিনি। এদিন বিলমাকশা নদীর ওপর সেতু নির্মাণের ফলক উন্মোচন করেন।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মুক্তিযোদ্ধা ফজলুর হক হায়দারী। বক্তব্য দেন কিশোরগঞ্জ-২ কটিয়াদী-পাকুন্দিয়ার সংসদ সদস্য সোহরাব উদ্দিন, কিশোরগঞ্জ-৫ বাজিতপুর-নিকলীর সংসদ সদস্য আফজাল হোসেন, কিশোরগঞ্জ-৪ অষ্টগ্রাম-ইটনা-মিঠামইনের সংসদ সদস্য প্রকৌশলী রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমএ আফজল, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জিল্লুর রহমান প্রমুখ। অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়ূয়া, রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব জয়নাল আবেদীন, জেলা প্রশাসক সারোয়ার মুর্শেদ চৌধুরী, পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদসহ সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি