রবিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮



বাউফলে ফুটবল মাঠে সংঘর্ষে আহত ১৫


আলোকিত সময় :
10.09.2018

পটুয়াখালী প্রতিনিধি:

পটুয়াখালী জেলার বাউফল উপজেলায় আন্তঃ স্কুল ফুটবল টুর্ণামেন্টের সেমি
ফাইনাল খেলায় ২ পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়েছে। আহতদের
মধ্যে ১ জনকে আশংকা জনক অবস্থায় বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ
হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রোববার বিকালে বাউফল মডেল মাধ্যমিক
বিদ্যালয় মাঠে এ ঘটনা ঘটেছে। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানা গেছে, আন্তঃ স্কুল
ফুটবল টুর্নামেন্টের সেমি ফাইনালে বাউফল মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও
নাজিরপুর ছোট ডালিমা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের খেলা অনুষ্ঠিত হয়। খেলা শেষ
হওয়ার ৫ মিনিট আগে বাউফল মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী
নাজিরপুর ছোট ডালিমা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের গোল কিপারকে লাথি মারে।
এরপরই হৈ চৈ হট্টগোল শুরু হলে ওই বিদ্যালয়ের ২টি গেট আটকে নাজিরপুর
ছোট ডালিমা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের খেলোয়ারদেরকে বেধরক কিল ঘুষি ও রড
দিয়ে পিটিয়ে জখম করে বাউফল মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।
খবর পেয়ে বাউফল থানার পুলিশ ঘটনা স্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে নেয়।
সংঘর্ষে বিপ্লব, এবায়দুল, সুজন, রাহাত, করিম, জামাল, হেমায়েত ও
বশিরসহ কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়। আহতদের মধ্যে বিপ্লবকে আশংকাজনক
অবস্থায় বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
নাজিরপুর ছোট ডালিমা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহবুব আলম
বলেন, আমাদের খেলোয়ারদের উপর অতর্কীত হামলা চালিয়েছে বাউফল মডেল
মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। তবে বাউফল মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের
প্রধান শিক্ষক নার্গিস আক্তার জাহান বলেন আমি অফিসের কাজে ঢাকায়
আছি। তাই কিছু বলতে পারছি না। এ বিষয়ে সোমবার (১০ সেপ্টেম্বর)
বাউফলের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পিজুস চন্দ্র দে তার অফিসে দুই
বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের ডেকে বিষয়টি মীমাংসা করেন। প্রায় ১ ঘন্টা ব্যাপী
আলোচনার পর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ৩-০ গোলের ব্যবধানে
নাজিরপুর ছোট ডালিমা মাধ্যমিক বিদ্যালয়কে বিজয়ী ঘোষনা করেন।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি