রবিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮



আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শুভেচ্ছা ও পাহাড়ারের শান্তির বার্তা নিয়ে এসেছি


আলোকিত সময় :
06.09.2018

দীঘিনালা মেরুং ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ী জনপদ রথিচন্দ্র কার্বারী পাড়া। যেখানকার মানুষের অবস্থান
দারিদ্রসীমার নীচে। যে জনপদে শিক্ষা- স্বাস্থ্যসহ সরকারী উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। যেখানে
স্বাধীনতার ৪৭ বছরেও কোন রাজনৈতিক নেতা বা জেলার শীর্ষ কোন জনপ্রতিনিধির পা পড়েনি। পাহাড়ী
উচু-নিচু পথ মাড়িয়ে সেই দুর্গম জনপদ রর্থিচন্দ্র কার্বারী পাড়ায় গেলেন পাহাড়ে যুব রাজনীতির
অহঙ্কার ও খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য পার্থ ত্রিপুরা জুয়েল।
গতকাল সকালের দিকে পার্থ ত্রিপুরা জুয়েল উন্নয়ন বঞ্চিত দুর্গম পাহাড়ী গ্রামে গেলেন, স্থানীয়দের
কথা শুনলেন, নিজে বললেন আর জয় করলেন পিছিয়েপড়া পাহাড়ী জনপদ রথিচন্দ্র কার্বারী পাড়ার খেটে খাওয়া
হতদরিদ্র মানুষের ভালোবাসা। বললেন আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শুভেচ্ছা বার্তা নিয়ে এসেছি।
আমি পৌছে দিতে এসেছি এ জনপদে আওয়ামীলীগের অভিভাবক, উন্নয়নের কান্ডারী কুজেন্দ্র লাল
ত্রিপুরা এমপি‘র শুভেচ্ছাবার্তা।
যুবনেতা পার্থ ত্রিপুরা জুয়েলের আগমনকে ঘিরে সবুজে মোড়ানো রথিচন্দ্র কার্বারী পাড়ার
অধিবাসীদের মধ্যে উচ্ছাস ছড়িয়ে পড়ে। আয়োজন করা হয় মতবিনিময় সভা। রথিচন্দ্র পাড়া বেসরকারী
প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি গুনাধর ত্রিপুরা কার্বারীর সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায়
প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের সর্বকনিষ্ঠ সদস্য পার্থ ত্রিপুরা
জুয়েল।
মতবিনিময় সভায় খাগড়াছড়ি পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল করিম,বাংলাদেশ ত্রিপুরা কল্যাণ সংসদ
খাগড়াছড়ি সদর আঞ্চলিক শাখার সভাপতি কাজল বরন ত্রিপুরা, দীঘিনারা উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক
স্নেহাশীষ ত্রিপুরা, টিএসএফ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি দেবাশীষ ত্রিপুরা, টিএসএফ সদর শাখার সহ-
সভাপতি ও নারী প্রতিনিধি সুবর্না ত্রিপুরা প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য পার্থ ত্রিপুরা জুয়েল বলেন, বর্তমান সরকার জনবান্ধব সরকার।
বর্তমান সরকারের উন্নয়ন এখন পশ্চাপদ ও অনগ্রসর জনপদেও দৃশ্যমান। জননেতা কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপির
নেতৃত্বে খাগড়াছড়িতে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রয়েছে। বর্তমান সরকারের আমলে যে উন্নয়ন হয়েছে
তা অতীতে কেউ করতে পারেনি।
সমাজকর্মী ও পাড়াবাসীর উদ্যোগে রথিচন্দ্র পাড়া বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার জন্য ধন্যবাদ
জানিয়ে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য পার্থ ত্রিপুরা জুয়েল বিদ্যালয়টির উন্নয়নে সব ধরনের
সহযোগিতার আশ্বাস দিয়ে বলেন, বর্তমান সরকার শিক্ষা ক্ষেত্রেও সাফল্য দেখিয়েছে। শিক্ষায় পিছিয়ে
থাকার সুযোগ নেই। এসময় তিনি বিদ্যালয়ে পাঠদানকারী চারজন শিক্ষককে ব্যাক্তিগত তহবিল থেকে
প্রতিমাসে এক হাজার টাকা করে সম্মানী প্রদানের ঘোষনা দেন।এসময় বিদ্যালয়টির আসবাবপত্রের
অসুবিধার কথা বিবেচনা করে ব্যাক্তিগত তহবিল থেকে শিক্ষকদের জন্য চারটি চেয়ার, শ্রেণি কক্ষের জন্য
২টি টেবিল, শিক্ষার্থীদের জন্য লেখাপড়ার সুবিধার্থে ১০টি হাই বেঞ্চ ও ১০টি লো বেঞ্চ প্রদান করেন।

একই সময় তিনি অসুস্থ রোগীকে চিকিৎসা সহায়তাসহ দুইজন শিক্ষার্থীকে আর্থিক অনুদান
প্রদান করেন।
আগামী দিনে সুখে দু:খে দুর্গম জনপদের দারিদ্র-পীড়িত মানুষের পাশে থাকার ঘোষনা দিয়ে পার্থ
ত্রিপুরা জুয়েল পানীয় জলের সমস্যা সমাধানে জেরক পাড়া, হেমন পাড়া, রথিচন্দ্র কার্বারী পাড়া ও নতুন
পাড়ায় (কাটাল পাড়ায়) একটি রিংওয়েল/টিউবওয়েল দেওয়া আশ্বাস দেন।
তারুণ্যের অহঙ্কার পার্থ ত্রিপুরা জুয়েল‘র সফরসঙ্গী হিসেবে টিএসএফ কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র সহ-
সভাপতি বিপুল বিকাশ ত্রিপুরা, টিএসএফ খাগড়াছড়ি সরকারী কলেজ শাখার সভাপতি টিটু ত্রিপুরা,
পেরাছড়া ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের মেম্বার জমেন্দ্র লাল ত্রিপুরা, নয় মাইল প্রাথমিক ও নিম্ন মাধ্যমিক
বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি কৃষ্ণ কিশোর ত্রিপুরা ও দীঘিনালা উপজেলা ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ
উপস্থিত ছিলেন।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি