বুধবার ১৭ অক্টোবর ২০১৮



বাউফলে শিক্ষকদের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন


আলোকিত সময় :
08.08.2018

বাউফল(পটুয়াখাল)প্রতিনিধিঃ
পটুয়াখালীর বাউফলের ৯৫ নং হোসনাবাদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ঘন্টাব্যাপী বিক্ষোভ ও মানবন্ধন করেছে প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা। এ সময় বিক্ষুদ্ধ এলাকাবাসি তাদের সাথে জোট হয়ে স্কুলে প্রবেশের চেষ্টা চালিয়ে শিক্ষক দ্বয়কে ছিনিয়ে নেওয়ার প্রচেষ্টা চালায়। মঙ্গলবার সকাল ১১ ঘটিকায় বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে  এ ঘটনা ঘটেছে।  বিদ্যালয়ের অভিভাবক মোঃ জিয়াউল হোসেন তালুকদার সভাপতিত্বে মানববন্ধনে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সুলতান আহম্মেদ,জহিরুল ইসলাম ও  মোঃ বাচ্চু । মানববন্ধনে তারা জানান, সহকারি শিক্ষক আনিচ ও লুবনা দুইজনে অনেক দিন যাবত স্কুলের ভিতরে ও বাহিরে অনৈতিক কার্যকলাপ চালিয়ে আসছে এবং বিদ্যালয়ের পাঠদানে অমনোযোগী থাকেন। এতে বিদ্যালয়ের সুনাম ক্ষুন্ন হয়। তাদেরকে মৌখিক ভাবে এ ব্যাপারে বহুবার সর্তক করে দেওয়া হয়েছে। তারপরও তারা সাবধান হয়নি। তাদের মধ্যে অবৈধ পরকিয়া সর্স্পকের কথা উল্লেখ করে এবং তাদের দুইজনকে ওই বিদ্যালয় থেকে অপসারনের জন্য ইউএনও ও উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে  আবেদনপত্র দেওয়া হয়েছে। তাতে কোন কার্যকর ব্যবস্থা না হওয়ায় অভিভাবক ও ছাত্র-ছাত্রীরা মিলে দুই শিক্ষকের অপসারনের দাবীতে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করে। এ ব্যাপারে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শিরিন আক্তার বলেন, তাদের ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য উধর্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট লিখিত ভাবে অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। সহকারি শিক্ষক লুবনা জানান, তারা কোন অবৈধ পরকিয়া বা অনৈতিক কার্যকলাপ করেন নাই। তারা তিন মাস হয়েছে বিবাহ করেছেন। ভারপ্রাপ্ত শিক্ষা কর্মকর্তা দেবাশীষ ঘোষ জানান,  ১৯৮৫ সালের সংশোধিত সরকারি কর্মচারির আচারণ বিধি আইনের ধারায় সহকারি শিক্ষক মোঃ আনিচুর রহান ও লুবনা আক্তারের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্যে পটুয়াখালী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে অবহিত করে তদন্ত রিপোর্টসহ প্রতিবেদন পাঠানো হয়েছে।


এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি