বুধবার ১৭ অক্টোবর ২০১৮



লাহারকান্দিতে আধা কিলোমিটার সড়কে যত দুর্ভোগ


আলোকিত সময় :
06.08.2018

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি :
লক্ষ্মীপুর পৌরসভার ১২ নম্বর ওয়ার্ড লাহারকান্দি এলাকার খামার বাড়ীর প্রায় আধা কিলোমিটার ব্রিক সোলিং সড়কে দুর্ভোগই চলাচলকারীদের নিত্যদিনের সঙ্গি। সড়কটির কিছুদূর পর পর ইট উঠে গিয়ে ও ভেঙ্গে গিয়ে ছোট-বড় বহু গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এতে এ রুটে চলাচলকারী ৫ হাজার মানুষকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে প্রতিদিন। স্থানীয়রা দ্রুত সড়কটি সংস্কার করার জন্য পৌরসভার মেয়র ও ওয়ার্ড কাউন্সিলরের হস্তক্ষেপ চেয়েছেন। সোমবার (৬ আগস্ট) সকালে সরেজমিন ওই এলাকায় গিয়ে মানুষের দুর্ভোগের এ চিত্র দেখা গেছে।
সরেজমিনে দেখা যায়, লাহারকান্দি এলাকার মিয়ার বাগবাড়ীর সামনে থেকে খামার বাড়ী পর্যন্ত প্রায় আধা কিলোমিটার সড়কটির বেহাল দশা। এ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন স্কুল-কলেজ ও মাদ্রসা পড়ুয়া শিক্ষার্থীসহ হাজারো মানুষ চলাচল করে। রাস্তাটি ভেঙ্গে ছোট-বড় বহু গর্তে পরিণত হয়েছে। এমনকি রাস্তা ও কালভার্টের দুই পাশের মাটি সরে গিয়ে ভয়ংকর রূপ ধারন করেছে।
খামার বাড়ী এলাকার চা দোকানী মো. খোরশেদ আলম বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ হলেও আমরা আজও অবহেলিত রয়ে গেছি। বর্ষাকালে আমার দোকানের সামনে দিয়ে চলাচল একেবারে অনুপযোগী হয়ে পড়ে।
মধ্য আবিরনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল কাদের বলেন, ভারি বৃষ্টির সময় সড়কটি দিয়ে চলতে খুব কষ্ট হয়। সড়কটি সংস্কার করে পাকা করা হলে দুর্ভোগ থেকে মুক্তি পাবো।

লক্ষ্মীপুর সরকারি কলেজের ডিগ্রী পড়ুয়া ছাত্র পারভেজ হোসেন বলেন, সরকারের ডিজিটালের ছোঁয়া এখনও আমাদের গ্রামে পৌঁছেনি। এ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন লক্ষ্মীপুর সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ, লাহারকান্দি উচ্চ বিদ্যালয়, দক্ষিণ লাহারকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, আবিরনগর ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা, মধ্য আবির নগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, আনন্দ নিকেতন মডেল একাডেমী ও ওপেন হার্ট স্কুল এন্ড কলেজসহ কয়েকটি শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানের শত শত ছাত্র-ছাত্রী যাতায়াত করে।

আনন্দ নিকেতন মডেল একাডেমীর সহকারী প্রধান শিক্ষক দেলোয়ার হোসেন বলেন, মেয়র ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর যদি কোমলমতি শিক্ষার্থী ও স্থানীয় এলাকাবাসির দুর্ভোগের কথা ভেবে রাস্তাটি পাকা করেন তাহলে সকলে চরম দুর্ভোগ থেকে রক্ষা পাবে।
সড়ক মেরামতের বিষয়ে জানতে চাইলে লক্ষ্মীপুর পৌরসভার ১২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মীর শাহাদাত হোসেন রুবেল বলেন, সড়কটি মেরামতের জন্য প্রকল্প দেওয়া হয়েছে। অনুমোদন হলে কাজ শুরু হবে।
লক্ষ্মীপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র কামাল উদ্দিন খোকন বলেন, সড়কটি কোন পর্যায়ে আছে তা আমার জানা নেই। সে দিকে আমার যাওয়া পড়ে না। সড়কের বিষয়ে সেই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ভালো বলতে পারবে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি