সোমবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮
  • প্রচ্ছদ » অর্থনীতি » ভিএলসিসি বাংলাদেশের বাজারে উন্মোচন করল কুলস্কাল্পটিং চিকিৎসা ব্যবস্থা



ভিএলসিসি বাংলাদেশের বাজারে উন্মোচন করল কুলস্কাল্পটিং চিকিৎসা ব্যবস্থা


আলোকিত সময় :
06.08.2018

আলোকিত বিজনেস ডেস্ক :

বিশ্বব্যাপী সমাদৃত সৌন্দর্য এবং সুস্বাস্থ্য বিষয়ক ব্র্যান্ড ভিএলসিসি বাংলাদেশে তাদের বিভিন্ন সেন্টারে অত্যাধুনিক কুলস্কাল্পটিং চিকিৎসা ব্যবস্থা প্রদান করা শুরু করেছে। এফডিএ অনুমোদিত সার্জারি ছাড়াই মেদ কমানোর আধুনিক চিকিৎসা ব্যবস্থার নাম কুলস্কাল্পটিং। এর মাধ্যমে শরীরের অন্য কোনো কোষ বা টিস্যুর ক্ষতি না করে ফ্যাট সেলগুলো অপসারণ করা হয়।

গুলশানের অলিভ হোটেলে নতুন এই সার্ভিসটি উন্মোচন করেন ভিএলসিসির ভাইস প্রেসিডেন্ট অ্যান্ড ইস্ট রিজিয়ন হেড ডাঃ শ্রীকান্ত দাস। সৌন্দর্য এবং ওজন নিয়ন্ত্রণের অন্যান্য চিকিৎসা ব্যবস্থার পাশাপাশি অত্যাধুনিক এই কুলস্কাল্পটিং বাংলাদেশের ভিএলসিসি গ্রাহকদের জন্য একটি নতুন সংযোজন।

অনুষ্ঠানে ডাঃ শ্রীকান্ত দাস বলেন, “বিগত কয়েক বছর ধরে দক্ষিণ এশিয়ায় ভিএলসিসির অবস্থান দৃঢ় হয়েছে এবং প্রতিনিয়ত আগামীর পথে এগিয়ে চলেছে। বিশেষত বাংলাদেশে এই প্রবৃদ্ধি লক্ষণীয়। বর্তমানে গুলশান ও ধানমন্ডিতে আমাদের ২টি সেন্টার রয়েছে। ভিএলসিসি গ্রাহকদের জন্য প্রতিনিয়ত অভিনব কিছু করার সাথে সাথে সর্বাধুনিক প্রযুক্তি নিয়ে আসছে। এখানেই আমাদের মূল শক্তি। তাই ঢাকার গ্রাহকদের কাছে কুলস্কাল্পটিং ট্রিটমেন্ট নিয়ে আসতে পেরে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত। কুলস্কাল্পটিং বলিউড এবং টলিউড সেলিব্রেটিদের মাঝে খুবই জনপ্রিয়। এর মাধ্যমে মূলত পেট, থাই, কোমরসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে বিদ্যমান অবাঞ্ছিত মেদ ঝড়িয়ে ফেলা হয়। চিকিৎসা গ্রহণের দুই সপ্তাহের মধ্যেই দেখতে পাওয়া যায় কুলস্কাল্পটিংয়ের ফলাফল।”

বাংলাদেশের বাজার সম্পর্কে ডাঃ শ্রীকান্ত বলেন, “বাংলাদেশের বাজার প্রচুর সম্ভাবনাময়। প্রতিনিয়ত এদেশের মানুষ শারীরিক সৌন্দর্যের পাশাপাশি সামগ্রিক সুস্বাস্থ্যের ব্যাপারে সচেতন হচ্ছেন। বাংলাদেশের ক্রমবর্ধমান সৌন্দর্য এবং সুস্বাস্থ্য সংক্রান্ত সেবা পূরণে ভবিষ্যতে আমরা আরও তিনটি কেন্দ্র স্থাপন করব।”

বাংলাদেশ মিউজিক ইন্ডাস্ট্রির অন্যতম পরিচিত মুখ হাবিব ওয়াহিদ এই অনুষ্ঠানে গান গেয়ে শোনান।

ভিএলসিসি গ্রুপ সম্পর্কে
১৯৮৯ সালে মিসেস বন্দনা লুথরার হাত ধরে গড়ে ওঠা ভিএলসিসি বিউটি এন্ড স্লিমিং সার্ভিসেস সেন্টার বর্তমানে সৌন্দর্য এবং সুস্বাস্থ্য বিষয়ক পণ্য ও সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে গ্রাহকদের কাছে অত্যন্ত আস্থাভাজন এবং সুপরিচিত। দক্ষিণ এশিয়া, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, জিসিসি অঞ্চল এবং পূর্ব আফ্রিকার ১৪টি দেশে ১৫০ এরও বেশি শহরে ৩৩০টিরও বেশি জায়গায় ভিএলসিসি গ্রুপ তাদের কার্যক্রম চালাচ্ছে। দেশগুলোর মধ্যে রয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত, সৌদি আরব, ওমান, কাতার, বাহরাইন, কুয়েত, কেনিয়া, ভারত, শ্রীলংকা, বাংলাদেশ, নেপাল, মালয়েশিয়া, সিংগাপুর এবং থাইল্যান্ড।

ক্স এশিয়াজুড়ে অন্যতম বৃহৎ স্লিমিং বিউটি এবং ফিটনেস সেন্টার চেইন পরিচালনা করে।
ক্স এশিয়ার সর্ববৃহৎ সৌন্দর্য ও পুষ্টি সংক্রান্ত কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নেটওয়ার্ক পরিচালনা করে।
ক্স ভিএলসিসি-এর সকল পণ্য কোম্পানির সুইজারল্যান্ড, ভারত এবং সিংগাপুর প্ল্যান্টে তৈরি হয়। ভিএলসিসির প্রস্তুতকৃত স্কিন কেয়ার, হেয়ার কেয়ার এবং বডি কেয়ার পণ্যের ব্র্যান্ডগুলো যথাক্রমে- ভিএলসিসি ন্যাচারাল সাইন্সেস, স্কিন এমটিএক্স, বেলাওয়েভ, ইভানোজ, ভিএলসিসি স্লিমার্স ভিএলসিসি শেপ আপ, স্পেসিফিক্স এবং ভিএলসিসি ওয়েলসাইন্স। পণ্যগুলি ভিএলসিসির সকল ওয়েলনেস সেন্টারে ব্যবহার করা হয়। এছাড়াও দক্ষিন এশিয়া, গালফ কোঅপারেশন কাউন্সিল কান্ট্রিজ, দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া এবং পূর্ব আফ্রিকার এক লক্ষেরও বেশি আউটলেটে পাওয়া যায়।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি