শনিবার ১৮ অগাস্ট ২০১৮



চাটমোহরে ট্রেনের টিকিট ফের কালোবাজারিদের দখলে


আলোকিত সময় :
06.08.2018

চাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধি :

চাটমোহর রেলওয়ে ষ্টেশনের টিকিট কাউন্টা্ের টিকিট না পাওয়া গেলেও টিকিট বিক্রি হচ্ছে মুদিখানা, চায়ের দোকান, খাবারের হোটেলে। রাজাশাহী-ঢাকা ও খুলনা-ঢাকা রেল যোগাযোগের অন্যতম ষ্টেশন চাটমোহর দীর্ঘদিন ধরে টিকিট কালোবাজারীদের দখলে। বাংলাদেশ রেলওয়ের পশ্চিম অঞ্চলের গুরুত্বপূর্ন ষ্টেশন চাটমোহরে প্রতিদিন প্রায় ৮টি আন্তঃনগর ট্রেন ও লোকাল বা মেইল ট্রেন চলাচল করে । এই ট্রেনগুলোতে পাবনাসহ প্রায় ৬টি উপজেলার সাধারণ মানুষ ঢাকা, রাজশাহী, খুলনা, নিলফামারি, রংপুর, দিনাজপুরসহ উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় যাতায়াত করে। কিন্তু ঢাকামুখী ট্রেনের টিকিট অপ্রতুল হওয়ায় এক শ্রেণীর অসাধু মানুষ আগেই টিকিট কাউন্টার থেকে সরকারি মূল্যে বা বুকিং ক্লার্ককে উৎকোচ দিয়ে টিকিটগুলো কিনে নেয়। পরে সাধারণ যাত্রীদের কাছে উচ্চ মূল্যে বিক্রি করে। এতে সাধারণ যাত্রীরা প্রতিদিনই হচ্ছে হয়রানির শিকার। আর অসাধু ব্যক্তিদের আঙ্গুল ফুলে কালাগাছ। সরেজমিনে দেখা যায়, রাজশাহী থেকে ঢাকা এসি চেয়ারের টিকিটের মুল্য ৬৫৬ টাকা হলেও সাধারণ ক্রেতাদের কাছ থেকে নেওয়া হচ্ছে ১১০০ থেকে ১২০০ টাকা। শোভন চেয়ারের মুল্য ৩৪০ টাকা হলেও নেয়া হচ্ছে ৫৫০ থেকে ৬০০ টাকা। চাটমোহর থেকে ঢাকা পর্যন্ত শোভন চেয়ার টিকিটের মূল্য ২৭০ টাকা হলেও সাধারণ ক্রেতাদের কাছ থেকে নেয়া হচ্ছে ৪০০- ৫০০ টাকা পর্যন্ত। এ ব্যাপারে হজ্বযাত্রী আবুল কাশেম জানান ৮-১০ দিন আগেও আমরা কাউন্টারে কোন টিকিট পাই নাই। চাটমোহর ষ্টেশন এর ভারপ্রাপ্ত ষ্টেশনমাষ্টার মহিউল আলমকে একথা জানাতে ফোন করা হলে তিনি রিসিভ করেন নাই। এব্যাপারে চাটমোহর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা সরকার অসিম কুমার জানান, টিকিট কালোবাজারি ঠেকাতে আমরা বিশেষ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছি । খুব তারাতারি এর ফল আপনার পাবেন।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি