বৃহস্পতিবার ১৯ জুলাই ২০১৮
  • প্রচ্ছদ » আজকের পত্রিকা »  জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলীর গোপন আঁতাত
    লক্ষীপুরে সাড়ে চার কোটি টাকার গভীর নলকূপ স্থাপনে দুর্নীতি



 জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলীর গোপন আঁতাত
লক্ষীপুরে সাড়ে চার কোটি টাকার গভীর নলকূপ স্থাপনে দুর্নীতি


আলোকিত সময় :
08.07.2018

লক্ষীপুর প্রতিনিধি:
লক্ষীপুর জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের গভীর নলকূপ স্থাপন দরপত্রে কারসাজি করার অভিযোগ উঠেছে। আওয়ামী লীগ নেতা তাজুল ইসলাম ভূঁইয়াকে ৬২৩টি নলকূপ স্থাপনের প্রায় সাড়ে চার কোটি কাজ পাইয়ে দিতে নির্বাহী প্রকৌশলী পলাশ চন্দ্র দাস গোপন আঁতাত করেছেন। ওই কর্মকর্তা গোপন প্রাক্কলনের মূল্য তালিকা (রেট কোড) টাকার বিনিময়ে তাজুল ইসলামকে সরবরাহ করেছেন বলে রবিবার (৮ জুলাই) কয়েকজন ঠিকাদার অভিযোগ করেছেন। এনিয়ে তারা ক্ষুদ্ধ।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, অগ্রাধিকারমূলক গ্রামীণ পানি সরবরাহ প্রকল্পের ল²ীপুরে গভীর নলকূপ স্থাপনের দরপত্র গত ১১ জুন আহবান করা হয়। এরমধ্যে সদর উপজেলায় ২৬৭, রামগতিতে ৮৯, কমলনগরে ৮৯ ও রামগঞ্জে ১৭৮টিসহ মোট ৬২৩টি নলকূপ রয়েছে। ল²ীপুর পৌরসভার ১২ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক তাজুল ইসলাম ভূঁইয়ার মালিকানাধীন এ টি ভূঁইয়া বিল্ডার্স ও চাঁদপুরের শামিম ট্রেডার্সের সঙ্গে যৌথভাবে কাজটি পাইয়ে দিতেতাদেরকে গোপনে প্রাক্কলনের মূল্য তালিকা সরবরাহ করে নির্বাহী প্রকৌশলী। অন্য ঠিকাদাররা দরপত্র সংগ্রহ করলেও বিষয়টি জানতে পেরে অনিশ্চয়তার কারণে হাতেগোনা কয়েকজন ছাড়া অন্যরা দরপত্র দাখিল করেননি। কূট-কৌশলের কারণে প্রতিটি নলকূপ ৭৩ হাজার টাকা দরে মোট ৪ কোটি ৫৪ লাখ ৭৯ হাজার টাকার ওই কাজটি পায় তাজুল ইসলামের সঙ্গে যৌথ ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। এছাড়া রায়পুরে ৮৯টি নলকূপ স্থাপনের কাজটি পায় অন্য ঠিকাদার।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে পৌরসভার বাগবাড়ী ও ঝুমুর এলাকার তিনজন ঠিকাদার জানায়, এ অফিসে তাজু সিন্ডিকেটের কারণে অন্য ঠিকাদাররা কাজ পায় না। নির্বাহী প্রকৌশলী টাকা নিয়ে গোপন রেট কোড তাকে সরবরাহ করেছে। গোপন আঁতাত করে তাকে কাজটি পাইয়ে দেওয়া হয়েছে।

আওয়ামী লীগ নেতা তাজুল ইসলাম ভূঁইয়া বলেন, আমি নিয়মানুযায়ী কাজ পেয়েছি। অন্য ঠিকাদাররা কাজ না পাওয়ার কারণে আমার বিরুদ্ধে অপ-প্রচার করছে। এ ব্যাপারে ল²ীপুর জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী পলাশ চন্দ্র দাস বলেন, কোন ঠিকাদারের সঙ্গে আমার কোন আঁতাত নেই। অন্য ঠিকাদাররা হয়তো কাজ না পেয়ে এসব কথা বলে থাকতে পারে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি