মঙ্গলবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮



৫৫০ টন খাদ্য ক্ষতিগ্রস্ত হবার আশংকা


আলোকিত সময় :
17.06.2018

তানভীর আঞ্জুম আরিফ, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি :

মৌলভীবাজার শহরের কুসুমবাগ এলাকার ৪টি সরকারী খাদ্য গুদাম পানিবন্দি হয়ে পড়ায় প্রায় ২ হাজার মেট্রিকটন চাল এবং গম পানিতে নষ্ট হওয়ার আশংকা রয়েছে।

রবিবার রাতে শহরতলীর বড়হাটের বারইকোনা এরাকায় মনু নদীর বাঁধ ভেঙে যায়। পানিবন্দি হয়ে যায় শহরের একাংশ।

খাদ্য গুদাম শহরের সিলেট রোডের অবস্থান হওয়ায় পানিবন্ধি হয়ে পড়ে।

জেলা শহরের চারটি সরকারি খাদ্য গুদামে বন্যার পানি প্রবেশ করায় প্রায় আড়াই কোটি টাকার চাল ও গম ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা করছে জেলা খাদ্য বিভাগ। তবে আজ বিকেলের দিকে

জেলা খাদ্য কর্মকর্তা মনোজ কান্তি দাশ চৌধুরী জানান, চারটি গুদামে এক হাজার ৫৬৮ টন চাল ও ৪২৪ টন গম মজুদ আছে। মজুদকৃত এই চাল ও গমের মূল্য প্রায় ৯ কোটি টাকা। গুদামে যে উচ্চতায় পানি ঢুকেছে তাতে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। প্রায় ৫৫০ টন ক্ষতিগ্রস্ত হবে, যার আনুমানিক মূল্য প্রায় আড়াই কোটি টাকা।

এর আগে মৌলভীবাজার জেলা খাদ্য গুদামের ইনচার্জ মো. সাখাওয়াত হোসেন জানান, রাতে হঠাৎ বন্যা দেখা দেয়ায় সরকারি খাদ্য গুদামের ভেতর প্রায় দুই হাজার মেট্রিকটন চাল ছিল, তা উদ্ধার করা যায়নি। কিছু চাউল উদ্ধার করা হয়েছে।

পানিবন্দি হয়ে পড়ায় এই চাল নিয়ে শঙ্কায় রয়েছে প্রশাসন।

খাদ্য গুদামের বিষয়ে জেলা প্রশাসক তোফায়েল ইসলাম বিকেলে সাংবাদিক সম্মেলনে জানান, আজ বিকেলে খাদ্য গুদাম থেকে চাল ও গম নিরাপদ স্থানে নেওয়া হয়েছে। তবে কিছুটা নষ্ট ও হয়েছে।

তিনি আরো জানান, এ এলাকা দিয়ে পানি আসবে সে আশংকা ছিলনা এবং যখন পানি আসল খাদ্য গুদামের চাল, গম সরিয়ে নেওয়ার মত পর্যাপ্ত সুযোগ ছিলনা।
এখন আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে সব চাল ভিজেছে তা আগে বিলি করা হবে ত্রান হিসেবে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি