মঙ্গলবার ২০ নভেম্বর ২০১৮
  • প্রচ্ছদ » Uncategorized » বিদেশী শক্তি ক্ষমতায় বাসাবে না
    দেশের জনগনই ক্ষমতায় বসাবে… কাদের



বিদেশী শক্তি ক্ষমতায় বাসাবে না
দেশের জনগনই ক্ষমতায় বসাবে… কাদের


আলোকিত সময় :
13.06.2018

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

বিদেশী শক্তি ক্ষমতায় বসাবে না। দেশের জনগণই শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় বসাবে মন্তব্য করেছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।সম্প্রতি বিএনপির তিন নেতার ভারত সফর নিয়ে তিনি সাফ জানিয়ে দিয়েছেন এতে তাদের কোনো মাথাব্যথা নেই, জনগণ ক্ষমতায় বসাবে, ভারত না। বিএনপি আমাদের ভারত সফর নিয়ে অভিযোগ করেছে, কিন্তু আমাদের কোনো অভিযোগ নেই। দেশের জনগণ আমাদের পক্ষে আছে।

১২ জুন (মঙ্গলবার) বিকালে ধানমন্ডির হোয়াইট হল কনভেনশন সেন্টারে শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ আয়োজিত সভা, দোয়া ও ইফতার মাহফিলে সাংবাদিকদের করা এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি নির্বাচনে ভারতের সমর্থনে আওয়ামী লীগ পুনরায় ক্ষমতায় আসে বলে প্রচার আছে। আওয়ামী লীগ ভারতমুখি এবং বিএনপি ভারতবিরোধী এমন প্রচারও রয়েছে। তবে সম্প্রতি বিএনপি ভারতের সঙ্গে তাদের যোগাযোগ বাড়িয়েছে। কয়েক দিন আগে বিএনপির স্থায়ী কমিটির এক সদস্যসহ তিন নেতা ভারতে সফর করে সেখানকার ক্ষমতাসীন বিজেপি এবং বিরোধী দল কংগ্রেসের সঙ্গে কথা বলে এসেছেন। হঠাৎ বিএনপি নেতাদের এই ভারত সফরকে বাংলাদেশের রাজনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে দেখা হচ্ছে। এর আগে আওয়ামী লীগের একটি প্রতিনিধি দলও দিল্লি সফরে যায়। তখন বিএনপি এই সফরের সমালোচনা করেছিল।

তবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপি ভারত গেল, দ্যান দরবার করলো; আর আমরা গেলাম তারা অভিযোগ করলো। ভারতে গিয়ে কার সঙ্গে কী আলাপ করলো এ নিয়ে আমাদের কোনো মাথা ব্যাথা নেই।

‘তাদের (বিএনপি) তো কাজই হচ্ছে নালিশ করা। তারা দেশেও নালিশ করে বিদেশে গিয়েও নালিশ করবে। আমরা মনে করি না ভারত আমাদেরকে ক্ষমতায় বসিয়ে দিবে। তবে ভারত আমদের বন্ধু দেশ।’

‘মাদকবিরোধী অভিযানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সহযোগিতা করতে দলের নেতাকর্মীদের আহ্বান’ জানিয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কোনো আপস নেই। দেশের জনগণ যখন সরকারের অর্জনে খুশি হয় তখন একটা মতলবি মহল মাতামাতি করে। মানুষ যেখানে খুশি, সেখানে তারা অখুশি। কিন্তু দেশের মানুষ যেটাতে খুশি, সেটা আমরা করে যাবো।’

‘মাদকবিরোধী অভিযানে মানুষ খুশি। আমরা মাদকবিরোধী অভিযান আরও জোরদার করবো। ভেজালবিরোধী অভিযান আরও জোরদার করবো।’

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘কারণ শেখ হাসিনা পরবর্তী নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার জন্য রাজনীতি করেন না, পরবর্তী প্রজন্মের জন্য রাজনীতি করেন।’

মন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশে গত ৪৩ বছর রাজনীতিতে এতো সৎ সাহস শেখ হাসিনা ছাড়া কেউ দেখাতে পারেনি। ৪৩ বছরে সব চেয়ে সফল রাজনৈতিক ব্যক্তি, সফল কূটনৈতিক হলো শেখ হাসিনা। এটা আমাদেরকে জাতি হিসেবে গর্বিত করে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জি-৭ সম্মেলনে রোহিঙ্গা সমস্যা, ধনী-গরিবের বৈষম্য নিয়ে ও নারীর ক্ষমতায়ন নিয়ে কথা বলেছেন।’

দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘সামনে নির্বাচন। আমাদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। কেউ কেউ এমন দলাদলি করেন যে, বিএনপির চেয়ে নিজের দলের নেতাকে বেশি শত্রু ভাবেন। এসব করে লাভ নেই। সুস্থ প্রতিযোগিতা করুন। নেত্রীর কাছে সবার খবরই আছে। উইনেবল ক্যান্ডিডেটকেই মনোনয়ন দেওয়া হবে।’

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি একে এম রহমতুল্লাহর সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল, আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, দপ্তর সম্পাদক আব্দুস সোবহান গোলাপ, ঢাকা মহানগর উত্তরের সাধারণ সম্পাদক
সাদেক খান, উত্তরের সহসভাপতি হাবিব হাসান প্রমুখ।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি