সোমবার ১৮ জুন ২০১৮



প্রধানমন্ত্রী দ্বিতীয় ধরলা সেতু উদ্বোধন করবেন রোববার


আলোকিত সময় :
03.06.2018

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলায় ৯৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের দ্বিতীয় ধরলা সেতুু রোববার উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সেতুটির নামকরণ করা হয়েছে ‘শেখ হাসিনা ধরলা সেতু’। সকাল ১০টায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এর উদ্বোধন করবেন তিনি। সেই সঙ্গে স্থানীয় বিভিন্ন স্তরের মানুষের সঙ্গে কথা বলবেন প্রধানমন্ত্রী।

এ উপলক্ষে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সেতুর পূর্ব পাড়ে আছিয়ার বাজার এলাকায় উদ্বোধনী ফলক স্থাপন, বড় পর্দায় ভিডিও কনফারেন্স প্রদর্শনসহ সমাবেশের আয়োজন করা হয়েছে।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ, স্থানীয় সরকার বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মাহবুবুল আলম, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী আবুল কালাম আজাদ, রংপুর জোনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী আফজাল হোসেন, জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. জাফর আলী ও পুলিশ সুপার মো. মেহেদুল করিমসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা, রাজনৈতিক নেতা ও সুধীজন উপস্থিত থাকবেন।

সেতুর উদ্বোধনকে ঘিরে ধরলার পূর্ব পাড়ের ফুলবাড়ী, নাগেশ্বরী ও ভূরুঙ্গামারী উপজেলাসহ গোটা জেলার মানুষের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার সৃষ্টি হয়েছে। সেতুটি চালু হলে প্রায় ১০ লাখ মানুষের দীর্ঘদিনের দুর্ভোগের অবসান হবে। ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসার ঘটবে। নতুন কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে।

স্থানীয় এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী সৈয়দ আবদুল আজিজ জানান, সারাদেশের সঙ্গে ফুলবাড়ী, নাগেশ্বরী ও ভূরুঙ্গামারী- এই তিন উপজেলাসহ সোনাহাট স্থলবন্দরের সড়কপথের দূরত্ব কমাতে ফুলবাড়ীর শিমুলবাড়ী ইউনিয়নের রামপ্রসাদ ও লালমনিরহাট সদর উপজেলার কুলাঘাট ইউনিয়নের চর কুলাঘাট এলাকায় ধরলা নদীর ওপর সেতুটি নির্মাণ করা হয়েছে। এর জন্য স্থানীয় সরকার বিভাগের আওতায় ১৯৬ কোটি টাকা ব্যয় হয়েছে।

তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১২ সালের ২০ সেপ্টেম্বর দ্বিতীয় ধরলা সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছিলেন। এরপর এর নির্মাণ কাজ ২০১৪ সালে শুরু হয়ে গত বছর ডিসেম্বরে শেষ হয়েছে। এর আগে ৬৪৮ মিটার দৈর্ঘের প্রথম ধরলা সেতু নির্মাণ করা হয়েছে। এটিরও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীন বলেন, কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থাসহ উদ্বোধন অনুষ্ঠানের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। আশা করছি, আনন্দমুখর পরিবেশে বিপুলসংখ্যক মানুষের অংশগ্রহণে উদ্বোধন অনুষ্ঠান শেষ হবে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি