শুক্রবার ১৯ অক্টোবর ২০১৮



কক্সবাজারে হতে পারে বাংলাদেশ জাদুঘর : মহাপরিচালক, বাংলা একাডেমি


আলোকিত সময় :
19.05.2018

কক্সবাজার প্রতিনিধি :

বর্তমানে দেশে শীর্ষস্থানীয় বুদ্ধিজীবি, খ্যাতিমান লেখক,গবেষক, বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক প্রফেসর ড. শামসুজ্জাম খানের সাথে প্রতিবেদকের একান্ত আলাপ চারিতায় তিনি বলেন, পর্যটন জেলা কক্সবাজারে হতে পারে বাংলাদেশ জাদুঘর নামে একটি জাদুঘর। ইহা বাস্তবায়ণ হলে কক্সবাজার সহ দেশের জন্য বহুলাংশে লাভবান হবে। বাংলাদেশ, মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস, কক্সবাজারের ইতিহাস ঐতিহ্য, সাহিত্য সাংস্কৃতি, লোকজসহ বিশেষ করে এই জনপদের ঐতিহ্য সেখানে স্থান পাবে। দেশিবিদেশী পর্যটকরা ঢাকার পরে বাংলাদেশকে জানতে পারবে। পর্যটন শিল্পে এটি নতুন মাত্রা যোগ করবে মনে করছি। বলতে গেলে ঢাকা চট্টগ্রামের পরে কক্সবাজারের স্থান। পরিকল্পিত ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যায়ে পর্যটন বিশ্বায়ণের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হলে কক্সবাজারকে ঘিরে আরো অনেক বেশি মহাপরিকল্পনা বুদ্ধি ভিত্তিক চিন্তাভাবনা দরকার।
কক্সবাজারে সাহিত্য সর্ম্পকে জানাতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, ভাল মনে হয়েছে কক্সবাজারের সাহিত্য চর্চার, কিছুটা আশার বানী দেখতে পাচ্ছি কিছু সম্ভবনাও। যারা আছে তারা যদি শুদ্ধতার মধ্যে থেকে এগিয়ে যায় অনেক দুর এগিয়ে যাবে। চট্টগ্রামে তো অনেক বড় বড় কবি সাহিত্যিকের জন্ম হয়েছে। এদিক থেকে বলতে গেলে অনেক সমৃদ্ধ এই জনপদ। সাহিত্য,কবিতা,ছড়া,গল্প, ইতিহাস, সমসাময়িক বিষয় নিয়ে এই জনপদে যারা ভাল লিখেন, তাদের জন্য কিছু অর্থনৈতিক পুরষ্কারের ব্যবস্থা করলে তাদের লেখার স্পৃহা অনেক দুর এগুবে। আগামী প্রজন্মের জন্য কিছু রেখে যেতে পারবে তারা।

বাংলাদেশের খ্যাতিমান এই মানুষটিই খোদ রোহিঙ্গা ইস্যুতে চিন্তিত বলে মত প্রকাশ করলেন, এটি এখন হাতের মুটের বাইরে চলেগেছে, কূটনৈতিক প্রক্রিয়ায় এর সমধান আসতে হবে। এর মাঝেও আমাদের আপনাদের আওয়াজ বন্ধ করলে হবে না। রোহিঙ্গা ইস্যু, আমাদের জন্য ছোট কোন বিষয় নয়, সেটির উপর বেশি জোর দিতে হবে, কারণ এই জেলার জনসংখ্যার মধ্যে আনুমানিক পনের থেকে বিশ লাখ রোহিঙ্গা জনসংখ্যা এখানে চেপে বসেছে, সব মিলিয়ে এত ছোট আয়তনের জেলায় এত মানুষের চাপ এতে জীবন চক্রের বিরূপ প্রভাব অব্যশতো পড়বেই। বরাবরে আমাদেরকে ভাবিয়ে তুলছে প্রতিনিয়ত এই বিষয়টি। এই রোহিঙ্গা গুলোর প্রর্ত্যাবাসন প্রক্রিয়াও অনেকটা জটিলতার দিকে রয়েছে। বেশ কয়েক বছর থেকে মাদকের আগ্রাসন চলছে অত্যন্ত নির্লজভাবে কক্সবাজার সহ সারাদেশে। এতে তরুণ প্রজন্ম অত্যন্ত খারাপভাবে ক্ষতির দিকে যাচ্ছে এতে কারো দ্বীমত করার কোন সুযোগ নেই। সন্তান আমার দেশ আমার মাদকের বিরুদ্ধে আমাদেরকেই রুখে দাঁড়াতে হবে। মনে রাখবেন আজকের সকালটাই একান্তই আপনার।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি