মঙ্গলবার ১৪ অগাস্ট ২০১৮



বাঘায় উচ্ছেদে বেকার জীবন কাটাচ্ছে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা


আলোকিত সময় :
07.04.2018

বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি :

বাঘায় উচ্ছেদ অভিযানে ব্যবসা হারাতে বসেছে প্রায় শতাধিক ব্যবসায়ী। উচ্ছেদের পর দুশ্চিন্তায় পড়েছে স্বল্প পূজির দরিদ্র ব্যবসায়ীরা। যাদের সামান্যতম সামর্থ্য আছে, তারা জায়গা ভাড়া নিয়ে ব্যবসা চালাতে পারলেও সিংহভাগ ব্যবসায়ী কিভাবে জীবিকা নির্বাহ করবে এচিন্তা পেয়ে বসেছে তাদের। এতদিন মাজার এলাকার ওয়াকফ্ সম্পত্তিতে ও রাস্তার পাশে পলিথিন টানিয়ে কিংবা ভ্যানের উপর দোকান বসিয়ে ব্যবসা করে জীবিকা নির্বাহ করছিলো এসব ব্যবসায়ীরা। নিতান্ত গরীব মানুষগুলো কর্মসংস্থানের ঠাঁই করে নেয় ওয়াকফ্ সম্পত্তিতে। এদের কেউ ছিলো গার্মেন্টসের জামা-গেঞ্জি ব্যবসায়ী, কেউ রুটি বিক্রেতা,কেউ ছিলো পান সিগারেট ও চা বিক্রেতা।
বুধবার (০৪-০৪-১৮) অভিযান চালিয়ে রাস্তার ধারে ও মাজার এলাকার ওয়াকফ্ সম্পত্তি থেকে শতাধিক দোকান উচ্ছেদ করে উপজেলা প্রশাসন। এর আগে সময় বেঁধে দিয়ে দোকান সরিয়ে নেয়ার জন্য মাইকিং করেছিলেন উপজেলা নির্বাহি অফিসার শাহিন রেজা। এর মধ্যে কেউ কেউ দোকান সরিয়ে নিলেও অনেকেই সরিয়ে নেয়নি।
চা-সিঙ্গাড়ার দোকান বসিয়ে জীবিকা নির্বাহের পাশাপাশি তার ছেলেকে লেখাপড়া করাতেন আব্দুস সালাম। বাবার একাজে সাহায্য করতো তার কলেজ পড়–য়া ছেলে সুমন। পুরাতন কাপড় ব্যবসায়ী ওমর আলী,কালাই রুটি বিক্রেতা ফাইমা, পান-সিগারেট বিক্রেতা রজব আলীসহ অনেকেই মাজার এলাকার ওয়াকফ্ সম্পত্তিতে ব্যবসা করে জীবিকা নির্বাহ করতো। রাস্তার ধারে দোকান বসিয়ে ব্যবসা করতো ফলমূল বিক্রেতা ফান্টু, চা বিক্রেতা সাইদুরসহ বেশকিছু ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী। এখন যাওয়ার জায়গা নেই তাদের। সামর্থ নেই দোকান ভাড়া নিয়ে ব্যবসা করার। উচ্ছেদের পর তাদের মাথায় যেন আকাশ ভেঙে পড়েছে। সরকারি সহযোগিতা ছাড়া ব্যবসা করে সংসার চালানো সম্ভব নয় বলে মনে করেন এসব ব্যবসায়ীরা। তাই সরকারের নিকট তারা কর্মসংস্থানের দাবি জানিয়েছে ।

বাঘা উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহিন রেজা বলেন, রাস্তার ফুটপাত ছাড়াও কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়াই মাজার এলাকার ওয়াকফ্ সম্পত্তিতে অবৈধভাবে দোকান বসিয়ে ব্যবসা করছিল। এতে যানজটে পথচারিদের চলাফেরায় বিঘœসহ পুরাতন স্থাপনা ঐতিহাসিক শাহী মসজিদটি বাইরে থেকে কোন ভাবেই দেখার উপায় ছিলনা। রাস্তায় চলাচলকারি লোকজনের মসজিদটি দেখার সুবিধার্থে মেইন সড়ক সংলগ্ন ওয়াকফ্ সম্পত্তিতে প্রাচীর দেয়া আছে। নিষেধাজ্ঞা সত্বেও সেই প্রাচীর ঘিরে ব্যবসা করতো। জনস্বার্থে উচ্ছেদ করা হয়েছে। তবে তাদের কর্মসংস্থানের বিষয়টি পরবর্তীতে ভেবে দেখা হবে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি