শনিবার ২০ অক্টোবর ২০১৮
  • প্রচ্ছদ » ইন্টারভিউ » নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির প্রেসিডেন্ট হিসেবে ১২ বছর পার করলেন এম. নাঈম হোসাইন



নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির প্রেসিডেন্ট হিসেবে ১২ বছর পার করলেন এম. নাঈম হোসাইন


আলোকিত সময় :
18.08.2017

নিজস্ব প্রতিবেদক : আন্তর্জাতিক উদ্দ্যোক্তা এম.নাঈম হোসাইন। তিনি একাধারে ক্যারিয়ার্সহাব বাংলাদেশ ও ইউনিটাস গ্রুপ অব কোম্পানিজ এর চেয়ারম্যান। এ ছাড়াও তিনি বাংলাদেশ সাপ্লাই চেইন কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট, ঢাকা ইয়ুথ এলায়েন্স এর প্রেসিডেন্ট। একই সাথে প্রায় দীর্ঘ ১২ বছর ধরে তিনি নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি এর অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়শনের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এই সময়ের মধ্যে তিনি কি কি পরিস্হিতির সম্মুখীন হয়েছেন ইত্যাদি বিভিন্ন বিষয়ে তিনি দৈনিক আলোকিত সময় কে এক বিশেষ সাক্ষাৎকার দিয়েছেন।

তার সাক্ষাৎকার নিয়েছেন আমাদের সিনিয়র রিপোর্টার মো.জুয়েল আহমেদ। সাক্ষাৎকারটি তুলে ধরা হলো –

দৈনিক আলোকিত সময় : আপনি তো নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন(আনসু) এর প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করছন, বিষয়টিকে আপনি কীভাবে দেখছেন?

এম নাঈম হোসাইন : বিষয়টা সবসময় এনজয় করি। দেশের এত বড় একটি বিশ্ববিদ্যালয় এর অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন এর প্রেসিডেন্ট, তাও আবার ১২ বছর হয়ে গিয়েছে। সবাই মিলেই ভালো কিছু করার চেষ্টা করছি।

দৈনিক আলোকিত সময় : আনসু সম্পর্কে কিছু বলেন?

এম নাঈম হোসাইন : প্রায় ১৭ বছর পূর্বে ২০০১ সালে আনসু গঠিত হয়। এর পূর্বেও এই সংগঠনে আরো ২ জন প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছে। আমি আনসু এর ৩য় প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করছি।

দৈনিক আলোকিত সময় : আনসু এ পর্যন্ত কি কি গুরুত্বপূর্ণ কাজ করেছে বলে আপনি মনে করেন?

এম নাঈম হোসাইন : আনসু মূলত ৩ টি ধারায় কাজ করে থাকে।

১. আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক বা স্নাতকোত্তর সম্পন্নকারীদেরকে কর্পোরেট ওয়ার্ল্ড এর সাথে সম্পর্ক স্হাপন করিয়ে দেয়া এর অন্যতম একটি কাজ। যেমন, আমার সময়ে কয়েকবার বিভিন্ন কোম্পানীর সি.ই.ও বা টপ ম্যানেজমেন্টদের সাথে ফ্রেশার্সদের নিয়ে গেট টুগেদার সেমিনার এর আয়োজন করেছি। যার মাধ্যমে তারা কর্পোরেট সম্পর্কে অজানা অনেক তথ্য জানতে পারে।

২.প্রতি বছরই নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি এর সাবেক শিক্ষার্থীদের নিয়ে গেট টুগেদার অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় যেখানে প্রায় হাজার হাজার প্রতিষ্ঠিত সরকারী কর্মকর্তা, ব্যবসায়ী, ইঞ্জিনিয়ার সহ অনেক পেশার কর্মজীবীই অংশগ্রহণ করে যারা পূর্বে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছিলো।

৩.আমরা কেন্দ্রীয়গাবে আমাদের সাবেক সকল শিক্ষার্থীদের ডাটাবেট তৈরী করছি এবং একাজ অনেকদূরই এগিয়েছে। আনসু এর ফেসবুক, টুইটার, লিংকডইন ছাড়াও অনেক গ্রুপ রয়েছে। এছাড়াও আমরা আরও বহু কাজে সম্পৃক্ত।

দৈনিক আলোকিত সময় : আনসু এরর প্রেসিডেন্ট হুসেবে কি কোন সমস্যার সম্মুখীন হয়েছেন?

এম নাঈম হোসাইন : না, আসলে এখনো ঐ রকম কোন সমস্যার সম্মুখীন হইনি। তবে প্রতিটি কাজ বাস্তুবায়ন করা খুবই চ্যালেঞ্জের।

দৈনিক আলোকিত সময় : আনসু নিয়ে আপনার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কি?

এম নাঈম হোসাইন: আমাদের এখন প্রথম লক্ষ বিশ্বব্যাপী আমাদের যতগুলো শাখা আছে তাদের সবাইকে একসাথে নিয়ে এগিয়ে যাওয়া। আমাদের শাখা কমিটি বাংলাদেশ এর বাইরেও ইউএসএ, কানাডা, ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, মধ্যপ্রাচ্চে অবস্থিত। আমরা বিভিন্ন দেশে আরও শাখা খুলছি।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি